মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৭ এপ্রিল ২০১৯

পাইলট প্ল্যান্ট এন্ড প্রসেসিং বিভাগ

 

বাংলাদেশ পাট গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিজেআরআই) এর পাইলট প্ল্যান্ট এন্ড প্রসেসিং বিভাগ ল্যাবরেটরীতে গবষণার মাধ্যমে পাটের বহুমূখী ব্যবহার নিশ্চিত করণের লক্ষ্যে পাটের সুতা, বিভিন্ন আঁশ মিশ্রিত কাপড় ও অন্যান্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে উদ্ভাবিত পাইলট স্কেলের পাটের সুতা, কাপড় ও অন্যান্য আঁশ মিশ্রিত পাটের কাপড়  উৎপাদনের সহিত রাসায়নিক দ্রব্যের সমন্বয়ে প্রচলিত দ্রব্যের গুণগত মান বৃদ্ধি এবং ডাইং, ফিনিশিং, প্রিণ্টিং উন্নত প্রদ্ধতি ব্যবহার করে স্বল্প ও বৃহৎ পরিসরে শিল্পে গ্রহণ এবং শিল্প প্রযুক্তির জন্য গবেষণা কাজ সম্পন্ন করা হয়।

পাইলট প্ল্যান্ট এন্ড প্রসেসিং বিভাগের কর্মকান্ড

  • গবেষণা পরিকল্পনা, পর্যালোচনা ও মূল্যায়নের মাধ্যমে পরিচালক (কারিগরী)-কে সার্বিক সহায়তা প্রদান।
  • বিভাগীয় গবেষণা কার্যক্রমের সমন্বয় এবং প্রাপ্ত ফলাফলের বাসত্মব প্রয়োগে সহায়তা প্রদান।
  • বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে প্রযুক্তি আদান প্রদান ও মত বিনিময়ের মাধ্যমে পাট হতে টেকনিক্যাল টেক্সটাইলে ব্যবহারের জন্য আধুনিক বিশ্বের চাহিদা অনুযায়ী সূতা, ওভেন, নন ওভেন ও নিটেড কাপড় তৈরীর গবেষনা করা।

বিভাগের শাখা গুলো হলো

  • ওয়েট প্রসেসিং শাখা
  • ইয়ার্ন এন্ড ফ্রেবিক প্রডাকশন শাখা
  • জুট ওয়েস্ট প্রসেসিং শাখা
  • কেমিক্যাল প্রসেসিং শাখা

 

         পাইলট প্ল্যান্ট এন্ড প্রসেসিং বিভাগের বিভিন্ন শাখার উদ্দেশ্যঃ

 

ওয়েট প্রসেসিং শাখার উদ্দেশ্য

১। পাট এবং পাটের সাথে বিভিন্ন প্রকার আঁশ জাতীয় ফাইবার, সূতা এবং ফেব্রিক স্কাওয়ারিং, বিস্নচিং, ডাইং করন।

২। পাট শিল্পের বহুমুখী ব্যবহার বৃদ্দির লক্ষে উন্নত ডায়িং, প্রিন্টিং কৃত পরিবেশ বান্ধব কাপড় শিল্পে স্থানামতর ।

 

ইয়ার্ন এন্ড ফ্রেবিক প্রডাকশন শাখা উদ্দেশ্য

১। পাটের বহুমুখী ব্যবহার বাড়ানো।

২। পাট শিল্পের বহুমুখী ব্যবহার বৃদ্দির লক্ষে উন্নত পাটের সূতা দ্বারা বিভিন্ন প্রকার পরিবেশ বান্ধব পাট বস্ত্র উৎপাদন।

জুট ওয়েস্ট প্রসেসিং শাখার উদ্দেশ্য

১। পাট থেকে পাটের আঁশ ছাড়ানো পর প্রাপ্ত পাটকাঠি নিয়ে গবেষণা।

২। শিল্প কলকারখানায় বিশেষ করে স্পিনিং ও উইভিং কলকারখানায় প্রক্রিয়াকরনের সময় অব্যবহৃত পাটের আঁশ তথা বর্জের সর্বাত্নক ব্যবহার নিশ্চিত করনের জন্য গবেষণা করা।

৩। গবেষণার মাধ্যমে নিম্নমানের পাটের আঁশ  ও জুট কাটিং এর ব্যবহার বৃদ্ধি করা।

কেমিক্যাল প্রসেসিং শাখার উদ্দেশ্য

পাটের সূতা এবং পাট পণ্য বিভিন্ন কেমিক্যাল প্রসেসিং এর মাধ্যমে সমস্যা দুরীকরণ এবং পরিবেশ বান্ধব পাট পণ্য উৎপাদন।

                                                                                      

 পাইলট প্ল্যান্ট এন্ড প্রসেসিং বিভাগের বিভিন্ন শাখার সাফল্যঃ

 

ওয়েট প্রসেসিং শাখার অর্জিত সাফল্য

১। জিও টেক্সটাইলঃ শুধু পাট এবং পাটের সঙ্গে নারিকেলের ছোবড়ার সংমিশ্রনে জিও টেক্সটাইল প্রস্ত্তত করা হয়েছে যা বিভিন্ন উদ্দেশ্যে যেমন-বাধ সংরক্ষন, মাটির ক্ষয়রোধ সেচ রক্ষাকরণ ইত্যাদি কাজে ব্যবপক ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

২। ডাইরেক্ট ডাই দ্বারা পাট রং করার পদ্ধতি উদ্ভাবনঃ বিভিন্ন ধরনের আকর্ষণীয় পাটজাত দ্রব্য উৎপাদনের লক্ষ্যে পাট বস্ত্রকে রং করার প্রয়োজন হয়। বিজেআরআইতে পাটজাত দ্রব্যকে স্থায়ীভাবে রং করার পদ্ধতি উদ্ভাবন করা হয়েছে যার মাধ্যমে মূল্য সংযোজিত পণ্য উৎপাদন করা সম্ভব। ফলে পাটজাত পণ্যের ব্যবহার বৃদ্ধি পারে এবং উক্ত দ্রব্যাদি বিদেশে রপ্তানী করা সম্বব।

৩। গরম কষ্টিক সোডার সাহায্যে পাটের কাপড়ে মারসেরাইজং পদ্ধতি উদ্ভাবনঃ পাট বস্ত্রকে কষ্টিক সোডার গরম তাপে নমনীয়, চাকচিক্য, রং ও ছাপা কাপডে রং ধারণ ক্ষমতা বহুলাংশে বৃদ্ধি করা সম্ভব হয়েছে। উক্ত পদ্ধতিতে ডিসাইজিং ও স্কাওয়ারিং প্রক্রিয়ার প্রয়োজন হয়না বিধায় প্রসেসিং খরচ কম।

ইয়ার্ন এন্ড ফ্রেবিক প্রডাকশন শাখার সাফল্য

১। জুট নিটেড ফেব্রিক্স উৎপাদন।

২। জুট ফার্নিশিং ফেব্রিক্স উৎপাদন।

৩। পরিবেশ দূষণকারী পলিথিন ব্যাগের বিকল্প পাটের ব্যাগ তৈরী পদ্ধতির উদ্ভাবন করা হয়েছে।

জুট ওয়েস্ট প্রসেসিং শাখার সাফল্য

১। বাংলাদেশ উৎপন্ন পাটের ২৫-৪০ শতাংশ নিমণমানের হয়ে থাকে যা ব্যবহার করা যায় না। এনজাইম ব্যবহারের মাধ্যমে অল্প খরচে এই পাটের মানোন্নয়ন করে পাট জাত পণ্য উৎপাদনে ব্যবহার করার পদ্ধতি উদ্ভাবন করা হয়েছে।

২। স্বল্প খরচে পাট থেকে শোষক তুলা উদ্ভাবনের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সম্মত এবং আরামদায়ত মেনিটারী ন্যাপকিন তৈরী করা হয়েছে।

৩। পাটবর্জ্য থেকে ফুয়েল কেক উৎপাদন পদ্ধতি উদ্ভাবন করা হয়েছে যা বিকল্প জ্বালানি হিসাবে ব্যবহার উপযোগী।

 

কেমিক্যাল প্রসেসিং শাখার সাফল্য

১। পচনরোধী পাটজাত দ্রব্য উৎপাদন পদ্ধতিঃ সাধারণ পাটবস্ত্র পচনশীল, যার স্থায়িত্বকাল ৩ মাসের বেশি নয়। কিন্তু রাসায়নিক ট্রিটমেন্ট এর মাধ্যমে পাটবস্ত্রের আয়ুস্কাল ৫-৬ বছর পর্যন্ত বর্ধিত করা সম্ভব হয়েছে।

২। পাট বস্ত্রকে হাইড্রোজেনপারঅক্সাইড ব্লিচিং করার পদ্ধতি উদ্ভাবনঃ সাধারণত পাট বস্ত্র ব্রাউন রংয়ের হয়ে থাকে। এই পাট বস্ত্রকে আকর্ষণীয় দ্রব্য তৈরী করার জন্য ব্লিচিং করার প্রয়োজন হয়। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে পাট বস্ত্র ব্লিচিং করে আকর্ষণীয় ছাপা কাপড় উৎপাদন করা সম্ভব।

 

 

  পাইলট প্ল্যান্ট এন্ড প্রসেসিং বিভাগের বিভিন্ন শাখার ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনাঃ

 

ওয়েট প্রসেসিং শাখার ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনা

             আধুনিক উপায়ে ডাইং, ফিনিশিং ও প্রিন্টিং উদ্ভাবিত প্রযুক্তির ব্যবহারের জন্য শিল্প গবেষণা শিল্পে স্থানান্তর।   

 

ইয়ার্ন এন্ড ফ্রেবিক প্রডাকশন শাখার ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনা

১। ময়লা ও ধুলা রোধক জুট কাপড় প্রস্ত্ততকরন।

২। অগ্নি নিরোধক ও দূঘটনা রোধক জুট ফেব্রিক্স প্রস্ত্ততকরন।

  

জুট ওয়েস্ট প্রসেসিং শাখার ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনা

১। পাটের আঁশ ও শিল্প কলকারখানায় অব্যবহৃত পাটের বর্জ্য থেকে শিল্প কলকারখানায় ব্যবহার উপযোগী পাল্প ও কাগজ তৈরীর প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণা।

২। পরিবেশ বান্ধব সল্ট ফ্রি রঞ্জিত করন প্রক্রিয়া নিয়ে গবেষণা কার্যক্রম।

৩। উন্নত মানের নন-ওভেন ফেব্রিক এর উৎপাদন প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণা কার্যক্রম।

 

কেমিক্যাল প্রসেসিং শাখার ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনা

১। পাটের ফেব্রিক্স ও পাট পণ্যে তৈলের দাগ সরানো প্রযুক্তি উদ্ভাবন।

 

জনবলের তথ্য:

ক্রমিক নং

পদবী

পদের সংখ্যা

বর্তমান জনবল

মন্তব্য

১.

সিএসও

১ টি

সিএসও (রম্নটিন দায়িত্ব)

১ জন সিএসও রুটিন

দায়িত্বে এবং ২ জন এসএসও

প্রেষণে

আছেন

২.

পিএসও

৩ টি

৩ জন

৩.

এসএসও

৩ টি

২ জন

৪.

এসও

৪ টি

৪ জন

৫.

স্টাফ

১৭ টি

১২ জন

কর্মকর্তাদের তালিকা

  • ড. নাজমীনা চৌধুরী  সিএসও (রুঃ দাঃ)
  • এইচ এম জাকির হোসেন, পিএসও
  • সামিনা জাফরিন,এসএসও
  • নাইয়ার সুলতানা, এসএসও
  • মোঃ আছিব ইকবাল,এসও
  • জাহিদ সরকার,এসও
  • নিয়াজ মোর্শেদ,এসও
  • ফাতেমা নুসরাত জাহান,এসও

      পাইলট প্ল্যান্ট এন্ড প্রসেসিং বিভাগের শাখাভিত্তিক কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের তালিকা

      পাইলট প্ল্যান্ট এন্ড প্রসেসিং বিভাগ

মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা –০১ জন (রুটিন দায়িত্ব)

স্টেনোগ্রাফার- ০১ জন

অফিস সহায়ক-০ জন

মোট = ০২ জন

ওয়েট প্রসেসিং শাখা  

প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা- ০১ জন

উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা - ০ জন

বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা - ০১ জন

ডায়ার- ০১ জন

প্রিন্টার-০১ জন

          মোট = ৪ জন

 

      জুট ওয়েস্ট প্রসেসিং শাখা

প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা- ০১ জন

উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা - ০১ জন

বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা - ০১ জন

সিনিয়র মেশিন অপারেটর- ০১ জন

সহকারী মেশিন অপারেটর -০১ জন

মোট = ৫ জন

      ইয়ার্ন এন্ড ফ্রেবিক প্রডাকশন শাখা

প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা- ০১ জন

বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা - ০১ জন

সিনিয়র মেশিন অপারেটর- ০৩জন

সহকারী মেশিন অপারেটর -০১ জন

উইভার -০২ জন

স্পীনার -০১ জন

মোট = ০৯ জন

 

        কেমিক্যাল প্রসেসিং শাখা

উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা - ০১ জন

বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা - ০১ জন

এলএ - ০১ জন

মোট = ০৩ জন

 

 


Share with :

Facebook Facebook